গত আসরের ফাইনালে খেলানো একাদশের ওপরই আস্থা রেখেছিলেন জিনেদিন জিদান

0

নিজেদের ১৩তম আর টানা তৃতীয় শিরোপার রেকর্ড গড়তে, গত আসরের ফাইনালে খেলানো একাদশের ওপরই আস্থা রেখেছিলেন, রিয়াল মাদ্রিদের ফরাসি কোচ জিনেদিন জিদান। সেই আস্থার প্রতিদানে– এক গ্যারেথ বেলই তছনছ করে দিলেন, লিভারপুলের রক্ষণ-দেয়াল। তার জোড়া গোলে লিভারপুলকে ৩-১ গোলে হারিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আধুনিক সংস্করণে প্রথম দল হিসেবে, টানা তিন আসরে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনন্য কীর্তি গড়লো লস-ব্লাঙ্কোস’রা।

কিয়েভের মাঠে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল ম্যাচে জমজমাট লড়াইয়ের আভাস দিয়ে নামে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর রিয়াল ও মোহাম্মদ সালাহর লিভারপুল। প্রথমার্ধের শুরু থেকে দাপুটে খেলা উপহার দিতে থাকে লিভারপুল। মুহুর্মুহু আক্রমণে কাঁপিয়ে তোলে সার্জিও রামোসদের রক্ষণ।

২৬ মিনিটের রামোসের সঙ্গে বল কাড়াকাড়ি করার সময়ে চোট পান মোহামেদ সালাহ। কিছুক্ষণ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে ফিরলেও খেলা চালিয়ে যেতে পারেননি লিভারপুলের মিশরীয় ফরোয়ার্ড। সালাহ বুঝতে পারেন, তার বহুদিনের লালিত স্বপ্নের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে আর খেলা হচ্ছে না। সালাহ’র সাথে কাঁদছিলো যেন লিভারপুল শিবিরও। ৩০ মিনিটে হাল ছেড়ে উঠে যান তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধে এসে জাল খুঁজে পায় দু’দলই। ৫১ মিনিটে লিভারপুল গোলরক্ষক কারিয়াসের হেয়ালির সুযোগ কাজে লাগিয়ে হোয়াইটদের ১-০ তে এগিয়ে দেন ফ্রান্সের বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে বাদ পড়া বেনজেমা। স্তব্ধ হয়ে পড়ে অল-রেড’দের ভক্তরা। তবে তাদের সেই হতাশাকে উৎ সবে রূপ দিতে খুব বেশি সময় নেয়নি লিভারপুল। ৫৫ মিনিটে জেমস মিলনারের কর্নার কিক থেকে দলকে সমতায় ফেরান সেনেগাল তারকা সাদিও মানে।

সে সমতা খুব বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি লিভারপুল। ৬৩ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান তারকা মার্সেলোর ক্রস থেকে বাইসাইকেল শটে গোল করে রিয়ালকে ২-১ এ ব্যবধানে এগিয়ে নেন গ্যারেথ বেল।

রিয়ালের তৃতীয় গোলটিও আসে ওয়েলস তারকার পা থেকে। ৮৩ মিনিটে ৩০ মিটার দূরে থেকে তার নেওয়া জোরালো শট গোলরক্ষকের হাত ফসকে জালে জড়িয়ে গেলে ম্যাচ ৩-১ ব্যবধানে এগিয়ে যায় জিদানের দল। এরপর আর ফেরা ‘কিছু’ করা হলো না ইংলিশ জায়ান্টদের। রিয়াল মাঠ ছাড়ে ১৩তম চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা জয়ের উল্লাসে মেতে।

এর ফলে ব্যক্তিগত শিরোপার আধিক্যে এগিয়ে গেলেন রোনালদোও। ক্যারিয়ারের পঞ্চম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতলেন এই পর্তুগিজ উইঙ্গার। ২০০৯ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে জেতার পর ২০১৪, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে রিয়ালের হয়ে আরও তিনটি ‘ইউরোপ সেরা’র শিরোপা জিতেছেন তিনি। । একই সঙ্গে প্রথম কোচ হিসেবে টানা তিনবার ইউরোপ সেরা হওয়ার কীর্তি গড়লেন ২০১৬ সালে মাদ্রিদের ক্লাবটির দায়িত্ব নেওয়া ফরাসি কোচ জিদান।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন