গতবছরের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দিনাজপুরের বাঁধ মেরামতে গাফিলতি

0

গতবছরের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দিনাজপুরের বাঁধ মেরামতে গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধের কিছু অংশ স্থায়ী কাঠামো ছাড়াই মেরামত করা হয়েছে। এতে আবারো বাঁধ ভেঙে যাওয়ার আশংকা করছে এলাকাবাসী। পানি উন্নয়ন বোর্ড বলছে, বাজেট স্বল্পতার কারণে পূর্ণাঙ্গ কাজ হয়নি। আর স্থানীয় সংসদ সদস্য বলছেন, উচু বাঁধ নির্মাণে কয়েক হাজার কোটি টাকা দরকার।

গতবছর আগষ্টে দিনাজপুরে ভয়াবহ বন্যায় বাঁধ ভেঙ্গে ১৩ উপজেলার বেশিরভাগ এলাকাই ডুবে যায়। এতে ২৯ জনের মৃত্যু হয়। বন্যার পর ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ মেরামত করে পানি উন্নয়ন বোর্ড। তবে এলাকাবাসীর অভিযোগ, ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধের অনেকাংশেই ঠিকমতো মেরামত করা হয়নি। তাই এবারো বাঁধ ভেঙ্গে বন্যা কবলিত হওয়ার আশংকা করছেন তারা।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের এই কর্মকর্তাও স্বীকার করেন, বাজেটে কম অর্থ বরাদ্দের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ পূর্ণাঙ্গরূপে মেরামত করা যায়নি। তবে এবার বন্যা মোকাবেলায়, নিজেদের প্রস্তুতি আছে বলে তার দাবি।

এদিকে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিও বলছেন, ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধগুলো মেরামত করা হয়েছে। দিনাজপুরবাসীকে বন্যা থেকে রক্ষা পেতে আগামীতে উচু বাঁধ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

দিনাজপুরে মোট বাঁধের পরিমাণ ২০৮ কিলোমিটার; এরমধ্যে শহররক্ষা বাঁধ ২৭ দশমিক ৯৬ কিলোমিটার। পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্যমতে, তাৎক্ষনিকভাবে ভেঙ্গে যাওয়া ৫৮ কিলোমিটার বাঁধ মেরামত করা হয়েছে। যাতে খরচ হয়েছে ২ কোটি ২৮ লাখ টাকা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন