খুলনায় চার দশক ধরে অগ্রণী ব্যাংকের বরাদ্দকৃত জমি অবৈধভাবে দখলে

0

খুলনার মুজগুন্নি এলাকায় অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের বরাদ্দকৃত জমি চার দশক ধরে অবৈধভাবে দখল করে নানান অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে একটি প্রভাবশালী চক্র। বৈধ কোন কাগজপত্র না থাকলেও বিএনপির সাবেক এমপির আত্নীয় পরিচয়ে প্রভাবশালী কতিপয় ব্যক্তি স্থানীয় মুজগুন্নী ইউনাইটেড ক্লাবের নামে জোর করে খেলার মাঠ তৈরির পায়তারা করছে। এই অবৈধ দখলদারদের বাধা ও হুমকির মুখে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বরাদ্দ দেয়া জমিতে স্থাপনা নির্মাণ করতে পারছে না ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

মহানগরীর ৯ নম্বর ওয়ার্ডে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-কেডিএ মুজগুন্নি আবাসিকে বরাদ্দ পেয়ে পুলিশ, জনতা ব্যাংক, রূপালী ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক এবং বাংলাদেশ বিমানসহ একাধিক প্রতিষ্ঠান প্লট ব্যবহার করছে। কিন্তু বিএনপির সাবেক এমপির আত্মীয় পরিচয়ে স্থানীয় কাজী আসাদুজ্জামান মিল্টনের নেতৃত্বে মুজগুন্নী ইউনাইটেড ক্লাবের নামে প্রভাবশালী একটি চক্র অগ্রনী ব্যাংকের প্লটটি দখল করে খেলা ও মেলার মাঠ তৈরি করে অবৈধ কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

আদালতের রায় পেয়ে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ একাধিকবার ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে কাযার্দেশ দিলেও খেলার মাঠ দাবি করে অবৈধ দখলদারদের হামলা ও হুমকির মুখে অসহায় হয়ে পড়েছে সরকারী এই প্রতিষ্ঠানটি।

তবে খেলার মাঠ হিসেবে দাবিকৃত জমি অগ্রনী ব্যাংকের স্বীকার করলেও এলাকারবাসীর প্রয়োজনে বরাদ্দ বাতিলের দাবি করলেন ক্লাবের সভাপতি।

খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ অগ্রণী ব্যাংককে প্লট বরাদ্দ দেয়ার কথা জানিয়ে জমি উদ্ধারে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছে। আর বিষয়টি খতিয়ে দেখে পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানালেন পুলিশ কমিশনার।

অবৈধ দখলদারদের বাধা ও হুমকিতে প্রয়োজনীয় স্থাপনা নির্মাণ করতে না পারায় গত চার দশকে কয়েক কোটি টাকার ক্ষতিতে পড়েছে সরকারী এ প্রতিষ্ঠানটি।

সরকারি প্রতিষ্ঠান অগ্রণী ব্যাংকের জমির অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদে জিরো টলারেন্সের ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন