কমলাপুর রেল স্টেশনেও শেষ দিনে বাড়ি ফেরা মানুষের উপচে পড়া ভীড়

0

কমলাপুর রেল স্টেশনেও শেষ দিনে বাড়ি ফেরা মানুষের উপচে পড়া ভীড়। সড়কের অবস্থার ওপর আস্থা না থাকায় অধিকাংশই এবার বাস নয়, ফিরছে ট্রেনে। এ কারণে, রাজধানীর বাস টার্মিনালগুলো খানিকটা ফাকা থাকলেও, অতিরিক্ত যাত্রীর জন্য সিডিউল বিপর্যয় হচ্ছে ট্রেনের। কোন কোন ট্রেন ছাড়ছে ৪ থেকে ৫ ঘন্টা দেরিতেও।

ঈদ আনন্দ পরিবার-পরিজনের সঙ্গে ভাগ করে নিতে এবারো শেষ মুহূর্তে গ্রামের বাড়িমুখে ছুটছে লাখো নগরবাসী। কিন্তু ব্যাতিক্রম সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালে। সেখানে যাত্রী ও গাড়ির সংখ্যাও কম। তবে বাসের যাত্রী সংখ্যা কম থাকলেও উল্টো চিত্র ট্রেনে। শুক্রবার ভোর না হতে কমলাপুরে হাজারো মানুষ ছুটে আসলেও ধুমকেতু এক্সপ্রেস, নীলসাগর,রংপুর লালমনি এক্সপ্রেস কোনটিই সঠিক সময়ে না আসায় অনেকে ঘুমিয়ে পড়েন প্লাটফর্মেই ।

স্টেশন ম্যানেজারের মতে, যাত্রী ওঠা নামাতে সময় বেশী লাগায় এ দেরী, যা মেনে নিতেই হবে। এদিকে বারবার হুশিয়ারিরর পরও ঠেকানো যায়নি যাত্রীদের ট্রেনের ছাদে ওঠা। বলছেন জায়গা না পেয়েই এ ঝুকি নিতে হচ্ছে তাদের। এত ভোগান্তির পরও সবার প্রত্যাশা- ঈদের জামাতে যেন শরিক হতে পারেন প্রিয় গ্রামের বাড়ীতে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন