কথিত বন্দুকযুদ্ধে ছ’জন নিহত

0

মাদকবিরোধী অভিযানে পুলিশ ও র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে কুষ্টিয়া, লক্ষ্মীপুর, নাটোর, যশোর ও কেরানীগঞ্জে ছ’জন নিহত হয়েছে। এসব জায়গা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে অস্ত্র ও গুলিসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য।

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার কূর্শা ইউনিয়নের আনন্দ বাজার বালুচর সংলগ্ন জোয়াদ্দারের ইটভাটার কাছে রেবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী ফুটু ওরফে মোন্না ও রাসেল আহম্মেদ নিহত হয়েছে। ইটভাটার কাছে মাদক ব্যবসায়ীদের অবস্থানের খবর পেয়ে রেব সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে রেবের গোলাগুলি হয়। এতে রেবের দুই সদস্য আহত হয়।

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর-চাঁদপুর সড়কের সিংয়েরপুল এলাকায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে মাদক ও হত্যাসহ ২২ মামলার আসামী সোহেল রানা ওরফে সুরাইয়া সোহেল নিহত হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১টি এলজি, ৩ রাউন্ড গুলি, ৬ রাউন্ড গুলির খোসা, ৩’শ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে ।

নাটোরের বড়াইগ্রামের বাহিমালী বাজারে রেবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ী ওসমান গনি নিহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার করা হয়েছে।

যশোরের মণিরামপুরে দু’দল ডাকাতের কথিত বন্দুকযুদ্ধে অজ্ঞাত এক যুবক নিহত হয়েছে। ভোরে যশোর-রাজগঞ্জ সড়কের কোদলাপাড়া জামতলা এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান, গুলি ও বোমা উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে, কেরানীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নুরা হোসেন ওরফে নুরু নিহত হয়েছে। ভোরে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ডায়মন্ড মেলামাইন কারখানার সামনে এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে। তার বিরুদ্ধে ঢাকা জেলায় ডাকাতি, খুন ও মাদকের ২১টি মামলাসহ দেশের বিভিন্ন থানায়ও একাধিক মামলা রয়েছে।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন