ওসি শাকিল এবং পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নির্দেশ

0

রাজশাহীর পুটিয়ার শ্রমিক নেতা নুরুল ইসলাম হত্যা মামলার এজহার বদলে দেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়া বরখাস্তকৃত পুলিশের ওসি শাকিল এবং রাজশাহীর পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পুলিশ মহাপরিদর্শককে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মামলাটির তদন্ত কাজ পিবিআইকে হস্তান্তরের নির্দেশও দেয় উচ্চ আদালত। একটি রিট মামলার শুনানি শেষে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন দুই সদস্যের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন। এদিকে, হত্যাকারিদের হুমকীর ভয়ে গেল ৬ মাস ধরে ভিটে-মাটি ছাড়া হয়ে আতঙ্কের মাঝে দিন কাটাতে হচ্ছে বলে অভিযোগ নিহতের স্বজনদের।

১১ জুন সকালে পুঠিয়ার কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের একটি ইটভাটা থেকে নুরুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পিতাকে হত্যা করা হয়েছে এমন দাবি করে রাজশাহীর পুটিয়া থানায় এজহার দায়ে করে মেয়ে নিগার সুলতানা। শ্রমিক ইউনিয়ন পুঠিয়ার নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান পটলসহ প্রতিপক্ষ ছয় শ্রমিক নেতার নামে এজহার হলেও পুটিয়া থানার তৎকালীন শাকিল তা বদলে দেন। শুধু তাই নয়, নুরুল সমকামি ছিলেন এবং ওই কাজে বাধ্য করার চেষ্টা করলে ১৬ বছর বয়সী কিশোর জীবন তাকে হত্যা করে এমন অভিযোগ পত্রও দেয় পুলিশ।

এমন প্রেক্ষাপটে এজহার বদলের অভিযোগে হাইকোর্টে রিট করেন নুরুল ইসলামের মেয়ে নিগার সুলতানা। শুনানি শেষে ওসি এবং এসপির বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণে আইজিপিকে নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।

মামলার পর থেকেই হত্যাকারিদের হুমকির কারণে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন বলে অভিযোগ স্বজনদের।

অশ্রু সজল চোখে এই মায়ের অভিযোগ, অপরাধীকে বাঁচাতেই ফাঁসানো হয়েছে তার ১৬ বছর বয়সী কিশোর জীবনকে।

কিশোর জীবনের জবানবন্ধী কিভাবে গণমাধ্যমে প্রকাশ পায় এবং সাবেক ওসি শাকিলের দুর্নীতি তদন্তে দুদককে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশও দেয় উচ্চ আদালত।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন