এক বিষয়ে ফেল করা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ভাবিয়ে তুলেছে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষকে

0

এইচএসসি পরীক্ষায় এক বিষয়ে ফেল করা শিক্ষার্থীর সংখ্যা ভাবিয়ে তুলেছে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষকে। বিশেষ করে ইংরেজি ও উচ্চতর গণিতের মতো বিষয়ে বেশি ফেল করছে পরীক্ষার্থীরা। তবে এর পেছনে শিক্ষকদের অদক্ষতাকেই দায়ী করছে শিক্ষা বোর্ড। এ অবস্থা কাটিয়ে উঠতে গ্রামের কলেজগুলোর দিকেই বেশি নজর বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন শিক্ষাবিদরা।

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসিতে এবার পাসের হার ৭৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ। পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়ায় স্বাভাবিকভাবেই বেড়েছে পাসের হার ও জিপিএ-৫’র সংখ্যা। কিন্তু এমন সাফল্যটা যেন ম্লান করে দিচ্ছে এক বিষয়ে ফেল করার প্রবণতা। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৭ সালে এক বিষয়ে ফেল করেছিল ২৭হাজার ৪৬১জন পরীক্ষর্থী। ২০১৮ সালে এই সংখ্যা ৩৫ হাজার ৩৭ জন এবং এ বছর তা প্রায় ২৭ হাজার।

শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ বলছে, সৃজনশীল পদ্ধতি সম্পর্কে অধিকাংশ শিক্ষকেরই স্পষ্ট ধারণা নেই। এ কারণে পরীক্ষার ফলাফলে এর প্রভাব ধরা পড়ছে।

এ জন্য আধুনিক শিক্ষাব্যবস্থার সঙ্গে শিক্ষকদেরও দক্ষতা বাড়াতে সরকারকেই উদ্যোগী হওয়ার পরামর্শ শিক্ষাবিদদের।

এবার এ বোর্ডের অধীনে ৭৫৮টি কলেজের পরীক্ষার্থী ছিল এক লাখ ৫১ হাজার ১৩৪জন। এরমধ্যে পাস করেছে এক লাখ ১৩ হাজার ৫৫০জন। তবে সাতটি কলেজের কোনো শিক্ষার্থীই পাস করতে না পরলেও শতভাগ পাসের সাফল্য দেখিয়েছে ৩৪টি কলেজ।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন