ঈদকে ঘিরে বিদেশে যাচ্ছে জামদানী, জুতা এব টুপি

0

ঈদকে ঘিরে বিদেশে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জের জামদানী, ভৈরবের জুতা এবং কুড়িগ্রামের টুপি। তাই ব্যস্ত সময় পার করছেন এখানকার কারিগররা। বাজার সম্প্রসারণ ও সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা পেলে– এসব পণ্য বদলে দিতে পারে এলাকার অর্থনীতি।

এক সময়ের বিখ্যাত মসলিনের জায়গা দখল করে নিয়েছে জামদানী। নারায়ণগঞ্জের জামদানীর খ্যাতি এখন বিশ্বজোড়া। আর ঈদে এই জামদানির চাহিদা বেড়েছে কয়েকগুণ। পাইকারদের চাহিদা মেটাতে তাই দম ফেলার সময় নেই রূপগঞ্জ জামদানি পল্লীর শ্রমিকদের। দেশের বৃহত্তম জুতা বাজার ভৈরব। ঈদকে সামনে রেখে এখানে তৈরি হচ্ছে আন্তর্জাতিক মানের জুতা। রপ্তানী হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যসহ বেশ কয়েকটি দেশে।

তবে ভারতীয় নিম্নমানের জুতা বাজার দখল করে রাখায় কিছুটা বেকায়দায় কারখানা মালিক ও ব্যবসায়ীরা। কুড়িগ্রামের কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার দলদলিয়া, থেতরাই, বজরা, খামার মাগুরাসহ কয়েকটি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রামে তৈরী হচ্ছে টুপি। এসব টুপি রপ্তানি হয় মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমানে। নিপুন হাতে সুই ও সুতা দিয়ে টুপির নকশা করে সংসারের বাড়তি আয় করছেন প্রায় ১০ হাজার নারী। খামার মাগুড়া গ্রামের যুবক কাজি আখতারুজ্জামান ফেনীর ওমান প্রবাসী কিছু লোকের মাধ্যমে অর্ডার নিয়ে আসছেন।

টুপি শিল্পের বিকাশে কারিগরদের প্রশিক্ষণসহ নানা পরিকল্পনার কথা জানালেন এ বিসিক কর্মকর্তা।  টুপি শিল্পের আন্তর্জাতিক বাজার সৃষ্টিসহ সরকারী পৃষ্ঠপোষকতার দাবি সংশ্লিষ্টদের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন

sixteen + 19 =

Test