আরসার যুদ্ধবিরতির শেষ হতেই সীমান্তে শক্তি বাড়িয়েছে মিয়ানমার বাহিনী

0

আরাকান রোহিঙ্গা সলিডারিটি আর্মি- আরসার যুদ্ধবিরতির মেয়াদ শেষ হতেই সীমান্তে শক্তি বাড়িয়েছে মিয়ানমার সরকার। শুধু সীমান্তবর্তী পাহাড়ে অস্ত্র উচিয়ে টহল বাড়ানোই হয়নি, সেনাবাহিনী ও বর্ডার গার্ড পুলিশ-বিজিপির ট্রাক আর পিকআপ বোঝাই সশস্ত্র সদস্যরা টহল বাড়িয়েছে সড়কেও। রোহিঙ্গাদের অভিযোগ, আতঙ্কিত হয়ে রোহিঙ্গারা যাতে নিজ বাড়ি-ঘরে ফিরতে না পারে, সেজন্যই সব আয়োজন করছে মিয়ানমারের সেনারা।

সীমান্তে পাহাড়ের ঢালে এভাবেই অস্ত্র উচিয়ে সাদা পোশাকে টহল দিচ্ছে মিয়ানমার সেনারা। অস্ত্র আর গোলাবারুদ নিয়েও ছুটছে এক পাহাড় থেকে অন্য পাহাড়ে। কখনো-কখনো রোহিঙ্গা শিবিরের দিকে অস্ত্র লোড করে– উত্তেজনা বাড়াচ্ছে। সড়কেও টহল বাড়িয়েছে ট্রাক আর পিকআপ বোঝাই সশস্ত্র সেনাবাহিনী এবং বর্ডার গার্ড পুলিশ। সংস্কার করেছে কাঁটা তারের বেড়াও। এটাকে উত্তেজনা সৃষ্টির চেষ্টা বলেই মনে করছে রোহিঙ্গারা।

যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলায়, এপাড়েও সীমান্তরক্ষী আর বিভিন্ন বাহিনী প্রস্তুত। কূটনৈতিক প্রচেষ্টার মাধ্যমে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধানের চেষ্টা বানচাল করতেই মিয়ানমার সেনারা কাজ করছে বলেও অভিযোগ রোহিঙ্গাদের।

শেয়ার করুন।
Test