আগামীতে সেতুর পাশাপাশি জাতীয় মহাসড়কে টোল আদায়ের নির্দেশ

0

আগামীতে সেতুর পাশাপাশি জাতীয় মহাসড়কে টোল আদায়ের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর এই আদায়কৃত অর্থ দিয়েই হবে সড়কের রক্ষণাবেক্ষণ কাজ। সকালে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে তিনি এ নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী মহাসড়কে এক্সেল লোড নিয়ন্ত্রণে ডিজিটাল ও স্বয়ংক্রিয় সিস্টেম চালুর নির্দেশ দেন। তিনি যশোর খুলনা মহাসড়কের সংস্কার কাজের ধীর গতিতে অসন্তোষ প্রকাশ করেন। বৈঠকে ১০টি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়।

স্বাধীনতার ৪৮ বছরে জাতীয় বাজেটের আকার বাড়ার সাথে অর্জিত হয়েছে সর্বোচ্চ জিডিপি। বেড়েছে মাথাপিছু আয়ও। উন্নয়নের এই ধারা ধরে রাখতে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরও আধুনিক ও যুগপোযোগী করতে জাতীয় মহাসড়কগুলোকে চারলেনে উন্নীত করছে সরকার। প্রতিদিনই বাড়ছে যানবাহনের সংখ্যা। ব্যবহারে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সড়ক, কমছে আয়ুষ্কাল; বাড়ছে রক্ষণাবেক্ষণ খরচ। আগামীতে এই ব্যয় মেটাতে উন্নত বিশ্বের মতো জাতীয় মহাসড়ক থেকে টোল আদায় করতে চায় সরকার।

রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলনে কক্ষে- জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায়–সেতুর মতো মহাসড়কে টোল আদায়ের নির্দেশ দেন একনেক চেয়ারপারসন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠকে শেষে ৬ হাজার ৩২৬ কোটি ২৩ লাখ টাকা ব্যয়ের ১০টি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেয় একনকে। এসময় প্রকল্প নিয়ে, সরকার প্রধানের বেশকিছু নির্দেশনা দেয়ার কথা জানান পরিকল্পনামন্ত্রী। জুলাই মাসের মূল্যস্ফিতি পাঁচ দশমিক ছয় দুই শতাংশ থেকে কমে আগস্ট মাসে পাঁচ দশমিক চার নয় শতাংশ হয়েছে বলেও জানান এম এ মান্নান।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন