অবৈধ ইটভাটার ধোয়ায় নষ্ট হচ্ছে শত বিঘা জমির ফসল

0

লালমনিরহাটের আদিতমারীতে প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমতি ছাড়াই তৈরি করা ইটভাটার ধোয়ায় নষ্ট হচ্ছে শত বিঘা জমির ধান ও বিভিন্ন ফসল। নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে অবৈধভাবে চালু করা ইটভাটাটি শিগগির বন্ধসহ ফসলের ক্ষতিপূরণের দাবি জানিয়েছেন কৃষকরা।

জেলার আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের দেওডোবা গ্রামে স্থানীয় ফারুক হোসেন, আশরাফুল ও হাফিজুল তিনজন মিলে চলতি বছরে ফসলি জমির উপর এএফএইচ ব্রিকস নামে ইটভাটাটি গড়ে তোলেন।ভাটাটির চারদিকে রয়েছে ফসলি ক্ষেত, বসতবাড়ি ও বিভিন্ন ফলজ গাছপালা। স্থানীয়দের প্রতিবাদের মুখে শুরুর দিকে স্থানীয় প্রশাসন কয়েকদফা অভিযান চালিয়ে ইট পোড়াতে নিষেধ করলেও তা মানেননি ইট ভাটার মালিকরা। অনেকটা জোর খাটিয়েই পোড়ানো হয় প্রায় ৫ লাখ ইট।

বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারলেও ইটভাটার কারণে ফসলের ক্ষতি হওয়ায় কৃষকদের ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দেন মালিক পক্ষ।

লোকালয় ও কৃষি জমিতে ইটভাটা বন্ধ করতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা চেয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও ।

বৈধ কাগজপত্র না থাকলে ইটভাটাটি বন্ধসহ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানালেন ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক।

আবাদী কৃষি জমি ও লোকালয়ে ইটভাটা স্থাপন করা আইনবিরোধী। তাই দ্রুত ইঁভাটাটি বন্ধ করে কৃষি জমি ও ফসল বাচাঁতে এগিয়ে আসবে প্রশাসন এমনটাই প্রত্যাশা ভুক্তভোগীদের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন