অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা মারা গেছেন

0

অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা মারা গেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টার দিকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিবসহ দলটির নেতারা।

বেশ ক’দিন আগে সাদেক হোসেন খোকার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে, ক্যানসারের চিকিৎসা দেয়া বন্ধ করে দেন চিকিৎসকরা। পাশাপাশি নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখে কৃত্রিম উপায়ে তার শ্বাস-প্রশ্বাস স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা চালান। কিন্তু মৃত্যূর সাথে পাঞ্জা লড়ে শেষ পর্যন্ত হার মানেন সাদেক হোসেন খোকা।

১৯৫২ সালের ১২ মে ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন সাদেক হোসেন খোকা। ১৯৭১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালীন মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন।

স্বাধীনতার পরে মাওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর গড়া ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টিতে যোগদানের মাধ্যমে পা রাখেন রাজনীতিতে। পরে তিনি বিএনপিতে যোগ দিয়ে ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৯১ সালে সূত্রাপুর-কোতোয়ালি আসন থেকে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৯৬ এবং ২০০১ সালেও তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ সালে দল সরকার গঠন করলে মৎস ও পশুসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হন সাদেক হোসেন খোকা। এরপর তিনি সরাসরি নির্বাচনে জয় লাভের মাধ্যমে ২০০২ সালের ২৫ এপ্রিল অবিভক্ত ঢাকার মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। টানা প্রায় ১০ বছর মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের কয়েকদিন আগে গ্রেফতার হন সাবেক এই মন্ত্রী ও মেয়র। কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেলে, তাকে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা তার স্বাস্থ্য সংক্রান্ত জটিলতার কারণ শনাক্ত করতে পারেননি। পরে একই বছর ১৪ মে ক্যান্সারের চিকিৎসা করাতে পাড়ি জমান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে।

সেই যাওয়াই সাদেক হোসেন খোকার দেশ থেকে বিদেশে শেষ যাওয়া হবে-এমনটা ভাবেননি কেউ।

সাদেক হোসেন খোকার মৃত্যূতে শোক জানিয়েছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপি নেতারা। পাশাপাশি শোক জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন