অবাধে গাছ কাটা হচ্ছে শেরপুরের গারো পাহাড়ে

0

অবাধে গাছ কাটা হচ্ছে শেরপুরের গারো পাহাড়ে। অবৈধ দখলদাররা নিয়মের তোয়াক্কা না করে কাটছে এসব গাছ। এতে স্থানীয়রা এই পাহাড়কে ন্যাড়া পাহাড় বলতে শুরু করেছে। বিবর্ণ হয়ে পড়েছে বিস্তৃর্ণ বনাঞ্চল। এদিকে, জনবল সংকটের অজুহাত নীরব বন বিভাগ।

এভাবেই প্রকাশ্যে চলছে গারো পাহাড়ের গাছ কাটার মহাৎসব। শেরপুর জেলার সীমান্তবর্তী নালিতাবাড়ী উপজেলার মধুটিলা, ঝিনাইগাতীর রাংটিয়া ও শ্রীবরদী উপজেলার বালিজুড়ি বনবিভাগের এই তিন রেঞ্জের আওতায় গারো পাহাড়ের বনাঞ্চল। এক সময় এখানে গাছের কারণে দেখা যেতো না সূর্যের আলো। অথচ এখনকার চিত্র পুরোটাই ভিন্ন। গত কয়েক বছর ধরে অবাধে দখল করা হয়েছে এসব বনাঞ্চলের জমি। নির্বিচারে কাটা হচ্ছে গাছ। উজার হচ্ছে পাহাড়ের বনাঞ্চল। স্থানীয়দের অভিযোগ, বৃক্ষ রোপনের নামে ধ্বংস করা হচ্ছে শালবাগান।

পাহাড়ের মালিক দাবি করে কেউ কেউ কেটে নিয়ে যাচ্ছে ইউক্যালিপটাস এবং আকাশমনিসহ বেশকিছু বাগানের গাছ।

সম্প্রতি তিন একর জায়গায় দু’শো গাছ কেটে ফেলার অভিযোগে গজনি বিট কর্মকর্তা আব্দুল বারীকে দায়িত্ব অবহেলার অভিযোগে গত ৭ জানুয়ারি ময়মনসিংহ বিভাগীয় অফিসে স্ট্যান্ড রিলিজ করেছে বিভাগীয় কর্মকর্তা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন