অন্য মামলা থাকায় মুক্তি পেতে বিলম্ব হবে: মওদুদ

0

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। জামিন বাতিলে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের করা আপিল খারিজ করে দিয়ে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ রায় দেয়। একইসঙ্গে নিম্ন আদালতের সাজার বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া আপিল বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশও দেয়া হয়। এসময় মওদুদ আহমেদ জানান, আরো মামলার কারণে শিগগির মুক্তি পাচ্ছেন না খালেদা জিয়া।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গেল ৮ ফেব্রুয়ারি বিএনপি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর কারাদণ্ড হয়। একইসঙ্গে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ পাঁচ আসামিকে কারাদণ্ড দেয়া হয় ১০ বছর করে।

এরপর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ২০ ফেব্রুয়ারি জামিন আবেদন দায়ের করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। এই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ১২ মার্চ খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেয় হাইকোর্ট। কিন্তু ওই জামিন স্থগিত চেয়ে পরদিন আপিল বিভাগে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক। ১৯ মার্চ আদালত লিভ টু আপিল মঞ্জুর করে আপিল শুনানির জন্য দিন ধার্য করে ৮ মে।

সবপক্ষের শুনানি শেষে রায়ের জন্য ১৫ মে দিন নির্ধারণ করে আপিল বিভাগ। সেদিন অ্যাটর্নি জেনারেল আরো শুনানির আবেদন জানালে আদালত তার শুনানির পর অবশেষে রায় ঘোষণা করলো।

তবে খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে তার আইনজীবীরা জানান,আরো মামলা থাকায় এ মুহুর্তে মক্তি পাচ্ছে না বিএনপি চেয়ারপারসন।

এদিকে, হাইকোর্টে এ মামলার আপিল শুনানির জন্য দুনীতি দমন কমিশন প্রস্তুত রয়েছে বলে জানান,দুদক আইনজীবী।

অন্যদিকে, খালেদা জিয়ার জামিন হতে পারে– এই প্রত্যাশায় বুধবার সকাল থেকে হাইকোর্টের সামনে জড়ো হন, বিএনপি নেতা-কর্মীরা।

শেয়ার করুন।

উত্তর দিন