অগ্নিপরীক্ষায় লিওনেল মেসি

0

অগ্নিপরীক্ষায় লিওনেল মেসি। অগ্নিপরীক্ষায় আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বাঁচা-মরার লড়াইয়ে, আর্জেন্টিনার সামনে আজ ইকুয়েডর। অনেক যদি আর কিন্তুর উপর নির্ভর করছে মেসিদের বিশ্বকাপ ভাগ্য। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে এছাড়াও মাঠে নামবে ব্রাজিল-চিলি, প্যারাগুয়ে-ভেনেজুয়েলা, পেরু-কলম্বিয়া এবং উরুগুয়ে-বলিভিয়া। সবগুলো ম্যাচই শুরু হবে বাংলাদেশ সময় ভোর সাড়ে ৫টায়।

দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে গত সপ্তাহে পেরুর সঙ্গে ঘরের মাঠে ড্র করে পয়েন্ট টেবিলের ষষ্ঠ স্থানে নেমে গেছে আর্জেন্টিনা। আর তাতে ১৯৭০ সালের পর প্রথমবার বিশ্বকাপে উঠতে না পারার শঙ্কায় পড়ে গেছে দুবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। জিতলেই প্লে-অফ খেলা নিশ্চিত হবে মেসিদের। তবে সরাসরি বিশ্বকাপে খেলাটাও সম্ভব আর্জেন্টিনার। এতে সমীকরনটা একটু কঠিনই বটে। ইকুয়েডরের বিপক্ষে জয়ের সাথে যদি পেরু-কলম্বিয়া ম্যাচটা ড্র হয় এবং চিলি হারে ব্রাজিলের কাছে। তবে তা সম্ভব।

আর্জেন্টিনা যদি ড্র করে তবে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার হিসেবটা আরো জটিল হয়ে যাবে। কলম্বিয়া যদি পেরুকে হারায়, চিলি দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে ব্রাজিলের কাছে হারে এবং প্যারাগুয়ে ভেনেজুয়েলাকে যদি হারাতে না পারে, তবেই তা সম্ভব। পেরু-কলম্বিয়া ম্যাচ যদি ড্র হয়, চিলি দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারে ব্রাজিলের কাছে এবং ভেনেজুয়েলা না জেতে কিংবা পেরু দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারে কলম্বিয়ার কাছে এবং একই ব্যবধানে চিলি হারে ব্রাজিলের কাছে, তবে আর্জেন্টিনা ইকুয়েডরের বিপক্ষে ড্র করেও প্লে-অফে অংশ নিতে পারবে।

আর্জেন্টিনা হেরে গেলেও প্লে-অফে খেলবে, যদি কলম্বিয়া পেরুকে দুই বা এর বেশি গোলের ব্যবধানে হারায় এবং ভেনেজুয়েলা না হারে। তবে ইকুয়েডরের বিপক্ষে ম্যাচ ভেন্যুতে অস্বস্তি রয়েছে দু’বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। কেননা সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ২ হাজার ৮০০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত কুইটোতে গত ১৬ বছরে জেতেনি আর্জেন্টিনা। তবে যে কোন মূল্যে ইকুয়েডরের বিপক্ষে বাঁচামরার লড়াইয়ে জয়ের ব্যাপারে দারুণ আত্মবিশ্বাসী দলটির কোচ। সারা দুনিয়ায় আর্জেন্টিনার ভক্তরাও আশায় আছেন শেষ পর্যন্ত রাশিয়ার টিকিট পাবে আলবিসেলেস্তারা। কারণ মেসি না থাকলে বিশ্বকাপ যে তার রং হারাবে অনেকখানি। শুরুর আগেই জৌলুস হারাবে রাশিয়ার বিশ্বকাপ। ফুটবল ভক্তরা নিশ্চয়ই আকর্ষণহীন বিশ্বকাপ দেখতে চাইবে না।

শেয়ার করুন।